ঢাকারবিবার , ২০ মার্চ ২০২২
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার

ফেব্রুয়ারিতে ১৬ মাসে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি

Admin
মার্চ ২০, ২০২২ ৭:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চাল, তেল, শাকসবজি থেকে শুরু করে মাছ-মুরগি পর্যন্ত খাদ্য পণ্যের দাম বৃদ্ধির কারণে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৬.১৭ শতাংশ। যা ১৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। এর আগে ২০২০ সালের অক্টোবরে মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ দশমিক ৪৪ শতাংশ।

গতকাল সোমবার বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) এসব তথ্য প্রকাশ করে। কনজ্যুমার প্রাইস ইনডেক্স (সিপিআই)-এর ওপর ভিত্তি করে মূল্যস্ফীতি পরিমাপ করা হয়। পরিসংখ্যান ব্যুরো গ্রামীণ এলাকায় সিপিআই পরিমাপে ৩১৮টি আইটেম এবং শহরে ৪২২টি পণ্য ও পরিষেবা নিয়ে কাজ করে।

বিবিএস বলছে চলতি বছরে ফেব্রুয়ারি মাসে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ১৭ শতাংশে। জানুয়ারি মাসে মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ। এছাড়া ফেব্রুয়ারিতে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে হয়েছে ৬ দশমিক ২২ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৫ দশমিক ৬০ শতাংশ। তবে খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে হয়েছে ৬ দশমিক ১০ শতাংশ, যা আগের মাসে ছিল ৬ দশমিক ২৬ শতাংশ। এছাড়া, শহরের চেয়ে গ্রামে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়েছে এই সময়ে।

বিবিএসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেব্রুয়ারি মাসে শহর এলাকায় সার্বিক মূল্যস্ফীতি কিছুটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৫৯ শতাংশে, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এছাড়া খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে হয়েছে ৫ দশমিক ৩০ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আর খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৯১ শতাংশে, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৬ দশমিক ১৭ শতাংশ।

অন্যদিকে ফেব্রুয়ারি মাসে গ্রামে সার্বিক মূল্যস্ফীতি বেড়ে হয়েছে ৬ দশমিক ৪৯ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৬ দশমিক ০৭ শতাংশ। একই সময়ে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৬২ শতাংশে, যা আগের মাসে ছিল ৫ দশমিক ৯৪ শতাংশ। তবে খাদ্য বহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কিছুটা কমে হয়েছে ৬ দশমিক ২৫ শতাংশে, যা জানুয়ারি মাসে ছিল ৬ দশমিক ৩২ শতাংশ।