ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার

‘সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা’

নিজস্ব প্রতিনিধি,দৈনিক ডাকবাংলা ডট কম
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২ ৭:১৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চলতি বছরের এসএসসি ও এসচএসসি পরীক্ষার সম্ভাব্য সময় বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে তার আগে সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা জুন থেকে আগস্টের মধ্যে নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এর আগে পরীক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ করতে হবে। সেটি সম্ভব হলে জুন থেকে আগস্টের মধ্যে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব।’

এদিকে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে খোলার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ওই দিন থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সশরীরে ক্লাস শুরু হবে। তবে দুই ডোজ টিকা নেওয়া ছাড়া শিক্ষার্থীরা ক্লাসে অংশ নিতে পারবে না বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

অন্যদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আরো দুই সপ্তাহ পর নেওয়া হবে। কভিড পর্যালোচনা কমিটির সুপারিশে এ সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রণালয়।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে আগে যেভাবে সীমিত পরিসরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরাসরি ক্লাস চলছিল এখনো সেভাবেই চলবে। যাদের দুই ডোজ টিকা দেওয়া আছে, শুধু তারাই সরাসরি ক্লাসে অংশ নিতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, ‘যেহেতু করোনার কারণে গত এক মাস বন্ধ ছিল, ঠিক যে জায়গায় শ্রেণিকক্ষে পাঠদান বন্ধ করেছিলাম সেই জায়গা থেকে আবার শুরু করব। চেষ্টা থাকবে করোনা সংক্রমণ যত নামতে থাকবে আমরা ক্লাসের সংখ্যা বাড়িয়ে যাব। যত দ্রুত সম্ভব স্বাভাবিক জায়গায় নিয়ে যেতে চেষ্টা করব।’

শিক্ষামন্ত্রী জানান, শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছে এক কোটি ২৬ লাখ ৫৭ হাজার ২২২ জন। করোনার দুই ডোজ টিকা সম্পন্ন হয়েছে ৩৪ লাখ ৪০ হাজার ৪৪৮ জন শিক্ষার্থীর।
এর আগে গতকাল বুধবার রাতে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে বৈঠকে করোনা সংক্রমণ কমতে থাকায় পর্যাপ্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২২ ফেব্রুয়ারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পরামর্শ দেয় কভিডসংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটি।