ঢাকাসোমবার , ১১ জানুয়ারি ২০২১
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বেতন কত পান? বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মানুষটি…

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্ট, দৈনিক ডাক বাংলা ডটকম
জানুয়ারি ১১, ২০২১ ৮:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ইলন মাস্কের অস্বাভাবিক সম্পদ বৃদ্ধির মূলে টেসলার শেয়ারের দাম বৃদ্ধি

‘কী আশ্চর্য!’ ধনীদের তালিকায় জেফ বেজোসকে পেছনে ফেলে টুইটারে লিখেছিলেন ইলন মাস্ক। তবে এত অবাক হওয়ার কী আছে? করোনাকালে তাঁর সম্পদ বৃদ্ধির যে হার আমরা দেখেছি, তাতে শীর্ষস্থানে যাওয়া ছিল কেবল সময়ের ব্যাপার।

যা হোক, ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইনডেক্সের তথ্য অনুযায়ী মার্কিন গাড়ি তৈরির প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার মোট সম্পদের পরিমাণ এখন ২০ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। জেফ বেজোসের ১৮ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের চেয়ে ঢের বেশি। সে সংবাদ দেখার পর মনে একটি প্রশ্ন জেগেছে, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মানুষটি বেতন কত পান?

টেসলা ও স্পেসএক্সের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোর বড় অংশের শেয়ারহোল্ডার ইলন মাস্ক। অর্থাৎ মালিকপক্ষ। বেতনের চেয়ে তাই শেয়ারের মূল্য ও লভ্যাংশের হিসাব করা বেশি যুক্তিযুক্ত। আবার তিনি তো প্রধান নির্বাহীও। কর্মিবাহিনীর প্রধান। সে দিক থেকে বেতনের হিসাব করতে চাইলে কেউ লাঠি নিয়ে তেড়ে আসার কথা না।

ইলন মাস্কের অস্বাভাবিক সম্পদ বৃদ্ধির মূলে টেসলার শেয়ারের দাম বৃদ্ধি। তিনি প্রতিষ্ঠানটির সবচেয়ে বড় শেয়ারহোল্ডার। মোট শেয়ারের পরিমাণ ২১ শতাংশের আশপাশে। আমাদের আলোচনাও আজ তাই টেসলাতেই সীমাবদ্ধ থাকুক।

বলা হয়েছিল, ইলন মাস্ক টেসলায় তাঁর কাজের প্রতিদানের প্রথম কিস্তি পাবেন যখন প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য ১০ হাজার কোটি ডলার পেরোবে

২০২৮ সালের লক্ষ্য ২০২১ সালেই পূরণ করেছেন ইলন মাস্ক

২০১৮ সালে টেসলার পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে অদ্ভুত এক চুক্তি করেন ইলন মাস্ক। সে চুক্তিতে বলা হলো, টেসলায় প্রধান নির্বাহী হিসেবে তিনি কোনো বেতন বা বোনাস পাবেন না। বরং কাজের প্রতিদান তিনি ১২টি কিস্তিতে পাবেন প্রতিষ্ঠানের মূল্যায়নের ওপর নির্ভর করে। মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে টেসলার বাজারমূল্য।

চুক্তিতে বলা ছিল, ইলন মাস্ক টেসলায় তাঁর কাজের প্রতিদানের প্রথম কিস্তি পাবেন যখন প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য ১০ হাজার কোটি ডলার পেরোবে। আর ২০১৮ সাল থেকে পরবর্তী ১০ বছরে বাজারমূল্য ৬৫ হাজার কোটি ডলারে নিয়ে যেতে হবে। বাজারমূল্য একটি একটি করে মাইলফলক ছোঁবে আর সে অনুযায়ী প্রতিদান পাবেন ইলন মাস্ক। অবশ্য শুধু মাইলফলক ছুঁলেই হবে না, একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত সে বাজারমূল্য ধরে রাখতে হবে। সবগুলো লক্ষ্য পূরণ করতে পারলে মোট ৫ হাজার ৫৮০ কোটি ডলার মূল্যের টেসলার শেয়ার পাবেন তিনি।

চুক্তির সময় টেসলার বাজারমূল্য ছিল ৫ হাজার ৪০০ কোটি ডলার। প্রথম দুই বছরে লক্ষ্য থেকে বহু পিছিয়ে ছিল টেসলার বাজারমূল্য। এরপর গত বছর তা কীভাবে প্রতি লাফে কতগুলো সিঁড়ির ধাপ টপকেছে, তা তো আমরা দেখেছিই। কেউ ভাবেননি সে প্রতিষ্ঠানের মূল্য এত দ্রুত আজ ৮৩ হাজার ৪১৭ কোটি ডলারে এসে দাঁড়াবে, ভাবেননি ২০২৮ সালের লক্ষ্য পূরণ হবে ২০২১ সালেই।