ঢাকাসোমবার , ৯ নভেম্বর ২০২০
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার

‘সিনিয়র কর্মকর্তার পরামর্শে’ পালিয়েছিলেন এসআই আকবর

নিজস্বপ্রতিনিধি, দৈনিক ডাক বাংলা ডটকম
নভেম্বর ৯, ২০২০ ৩:১৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ নিহতের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত বরখাস্ত হওয়া এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া সিনিয়র কর্মকর্তার নির্দেশে পালিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন।

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় সীমান্তঘেষা ভারতের ডনা বস্তিতে আটক হওয়ার পর এ তথ্য জানান তিনি।

আটকের সময়ের একটি ভিডিও ক্লিপে দেখা গেছে, ভারতের খাসিয়ারা তাকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করছে। তাদের প্রশ্নের জবাবে আকবর বলেন, ‘আমাকে সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছিল, তুমি আপাতত চলে যাও, কয়মাস পরে আইসো। দুইমাস পরে সব ঠাণ্ডা হয়ে যাবে। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে আবার সব হ্যান্ডেল করা যাবে’।

তবে কারা এমনটি বলেছিলেন বা কার নির্দেশে তিনি পালিয়ে যান এসম্পর্কে কিছু বলেননি ওই ভিডিওতে।

এদিকে আকবরকে ভারতে পালানোর সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন। সোমবার সন্ধায় প্রেস ব্রিফিংকালে তিনি এ তথ্য জানিয়ে বলেন, আমরা বাংলাদেশের সীমান্ত থেকেই পুলিশের স্থানীয় কিছু বন্ধুদের সহযোগিতায় আকবরকে গ্রেপ্তার করি। আকবরকে খাসিয়ারা আটক করেছে ও এর ভিডিও ভাইরাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, একটি ভিডিও ছড়িয়েছে বলে শুনেছি। তবে সেটি এখনো আমি দেখিনি।

খাসিয়ারা আকবরকে আটক করেছে-এমন বিষয়টি তিনি অস্বীকার করে বলেন, আকবর ভারতে পালাতে পারে-এমন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে এসপি ফরিদ উদ্দিন বলেন, আকবর ভারত থেকে দেশে আসতেও পারে আবার পালাতেও পারে। এ অবস্থায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত সিলেটের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন বলেন, আইনের উর্ধে কেউ নয়। কেউ অন্যায় করলে তাকে আইনের আওতায় এনে বিচারের সম্মুখিন করতে হবে। রাতে আকবরকে মামলা তদন্তকারী সংস্থা পিবিআই এর কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।