1. admin@doinikdakbangla.com : Admin :
স্কুলছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণ, পুলিশ সদস্যের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড » দৈনিক ডাক বাংলা
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৪০ অপরাহ্ন

স্কুলছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণ, পুলিশ সদস্যের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিজস্বপ্রতিনিধি, দৈনিক ডাক বাংলা ডটকম
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৪২ বার পঠিত

দিনাজপুরে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের দায়ে নবীউল ইসলাম নামে এক পুলিশ কনস্টেবলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

দিনাজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক সিনিয়র জেলা জজ শরীফ উদ্দীন আহমেদ বুধবার (৭ অক্টোবর) এ রায় ঘোষণা করেন। নবীউল ইসলাম ঢাকা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের কনস্টেবল (কং নং-৯১৯) ও দিনাজপুর শহরের মাতাসাগর পানুয়াপাড়া এলাকার জাফর আলীর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল মহারাজা গিরিজানাথ স্কুলে যাওয়ার পথে দিনাজপুর শহরের বটতলী নামক এলাকা থেকে ওই স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে যায় পুলিশ কনস্টেবল নবীউল ইসলাম। এরপর বিয়ের কথা বলে প্রথমে রংপুরের বদরগঞ্জ এবং পরে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে ওই স্কুলছাত্রীকে দীর্ঘ ১৫ মাস ধরে আটকে রেখে ধর্ষণে করে।

এ বিষয়ে ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল স্কুলছাত্রী নিখোঁজের বিষয়ে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় একটি জিডিও করে স্কুলছাত্রীর পরিবার।

পরবর্তীতে দীর্ঘ ১৫ মাস পর ২০১৫ সালের ১ আগস্ট ওই স্কুলছাত্রীকে ঢাকা থেকে এনে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর রেলস্টেশনে নামিয়ে দিয়ে পুলিশ কনস্টেবল নবীউল ইসলাম জানায়- তার সঙ্গে কোনো বিয়ে হয়নি। এরপর সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় স্কুলছাত্রীর চেঁচামেচিতে স্থানীয়রা এসে নবীউলকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ বিষয়ে স্কুলছাত্রীর দাদি বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় পুলিশ কনস্টেবল নবীউল ইসলামসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে বুধবার আদালত পুলিশ কনস্টেবল নবীউল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডাক বাংলা

Theme Customized BY LatestNews