ঢাকারবিবার , ৪ অক্টোবর ২০২০
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার

জিয়া মুক্তিযোদ্ধার ছদ্মাবরণে পাকিস্তানের সহযোগী ছিল: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক, দৈনিক ডাক বাংলা ডটকম
অক্টোবর ৪, ২০২০ ৫:০০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জিয়াউর রহমান যে মুক্তিযোদ্ধার ছদ্মাবরণে প্রকৃতপক্ষে পাকিস্তানের সহযোগী হিসেবে কাজ করছিল সেগুলোর তথ্য-উপাত্ত বেরিয়ে আসছে। এগুলো যখন পত্রপত্রিকায় ছাপানো হচ্ছে, তখন তাদের গাত্রদাহ হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের অপকর্ম ঢাকার জন্যই বিএনপি অফিসের সামনে মানববন্ধন করছে।

রবিবার (৪ অক্টোবর) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে চলচিত্র নির্মাতা, গবেষক ও প্রশিক্ষকদের সঙ্গে সভাশেষে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান যে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত ছিল এবং বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুনর্বাসিত করেছেন, সেগুলো যখন দিবালোকের মতো স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এগুলো যখন পত্রপত্রিকায় ছাপানো হচ্ছে, জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্য আকারে গণমাধ্যম উপস্থাপন করছে তখন বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করেছে বিএনপি। বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর মুক্তিযুদ্ধের সব চেতনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছে। যে চেতনার ভিত্তিতে দেশ স্বাধীন হয়েছিল সেই চেতনাকে ধ্বংস করেছেন তিনি।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আওয়ামী লীগ আগে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করতে চায়- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গয়েশ্বর বাবু, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি হচ্ছে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল। বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করেছে বিএনপি। বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর মুক্তিযুদ্ধের সব চেতনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছে। যে চেতনার ভিত্তিতে দেশ স্বাধীন হয়েছিল সেই চেতনাকে ধ্বংস করেছেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনেও অনুপ্রবেশকারীদের আর কোনো জায়গা হবে না। একইসঙ্গে সংগঠনকে গতিশীল করার জন্য ও যেসব জায়গায় সম্মেলন হয়েছে সেই কমিটিগুলো পূর্ণাঙ্গ করার জন্য এবং জেলা-উপজেলায় সম্মেলন হয়নি সেখানে সম্মেলন করার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।