ঢাকামঙ্গলবার , ২৬ মে ২০২০
  1. International
  2. অন্যান্য
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. উৎসব
  6. খেলাধুলা
  7. চাকুরী
  8. জাতীয়
  9. দেশজুড়ে
  10. ধর্ম
  11. পরামর্শ
  12. প্রবাস
  13. ফরিদপুর
  14. বিনোদন
  15. বিয়ানীবাজার

সৌদিতে কারফিউ তুলে নেওয়া হচ্ছে,জারি থাকবে মক্কায়

অনলাইন ডেস্ক
মে ২৬, ২০২০ ১০:১৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের কারণে জারি করা কারফিউ ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হবে। ৩১ মে থেকে ২০ জুনের মধ্যে খুলে দেওয়া হবে মসজিদগুলোও।

সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের কারণে জারি করা কারফিউ ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হবে। ৩১ মে থেকে ২০ জুনের মধ্যে খুলে দেওয়া হবে মসজিদগুলোও।

সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের কারণে জারি করা কারফিউ ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হবে। ৩১ মে থেকে ২০ জুনের মধ্যে খুলে দেওয়া হবে মসজিদগুলোও। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সেখানে মানুষ নামাজ পড়তে যেতে পারবেন।

সৌদি প্রেস এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, আগামী ২১ জুন থেকে সৌদি আরবে জারি করা কারফিউ প্রত্যাহার করা হচ্ছে। তবে শুধু পবিত্র মক্কা নগরীতে ব্যতিক্রম থাকবে। সেখানে কারফিউ বহাল থাকবে। কিন্তু কারফিউর সময়সীমা কমিয়ে আনা হচ্ছে। সেখানে কারফিউ থাকবে বিকেল ৩টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত।

২১ জুন থেকে কড়াকড়ি আরও কমানো হবে। কড়াকড়ি কমলেও ২০ জুন পর্যন্ত বেলা তিনটা থেকে ভোর ছয়টা পর্যন্ত কারফিউ জারি থাকবে।

দেশের ভেতরে চলাচল, মসজিদে নামাজ আদায় ও সরকারি–বেসরকারি খাতে কাজ শুরু হওয়ার কথা ৩১ মে।

সৌদি আরবে করোনা সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন স্থানে প্রথমে কারফিউ দেওয়া হয়েছিল। তবে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দিনে ২৪ ঘণ্টার কারফিউ দেওয়া হয় সম্প্রতি। এর আগে রমজানে বেশির ভাগ স্থানে বিকেল ৫টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত কারফিউ দেওয়া হয়।

সৌদি আরবে গতকাল সোমবার ২ হাজার ২৩৫ জন নতুন কোভিড–১৯ শনাক্ত হয়েছেন, এর সময় মৃত্যু হয়েছে নয়জনের। এ নিয়ে শনাক্তের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭৪ হাজার ৭৯৫। দেশটিতে করোনায় মৃত্যু ৩৯৯ জনের।

এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫৬ লাখ মানুষ। এর মধ্যে ৩ লাখ ৪৭ হাজার ৮৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ২৩ লাখ ৬৫ হাজার মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যুক্তরাষ্ট্রে, ১৭ লাখ ৬ হাজার। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১ লাখ মানুষের। এরপরেই ব্রাজিল ও রাশিয়ার অবস্থান। স্পেন ৪ নম্বরে। দীর্ঘ তিন মাস ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গেছে স্পেন। এখন সেখানে পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেকটাই ভালো।
তথ্যসূত্র: বিবিসি ও আরব নিউজ